বৃষ্টির মধ্য দিয়ে শুরু হলো আষাঢ়ের প্রথম দিন

0

আলোকিত রিপোর্ট:

বৃষ্টির মধ্য দিয়ে শুরু হলো আষাঢ়ের প্রথম দিন। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সকাল থেকে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং উপকূলীয় এলাকায় লঘুচাপ বিরাজ করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় বায়ুচাপের আধিক্য আছে এবং আকাশে গভীর সঞ্চারণশীল মেঘের সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে দেশে বৃষ্টি আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহওয়া অধিদফতর।

গেলো সপ্তাহ থেকেই আকাশ জানান দিচ্ছে বর্ষা আসছে। তাই আজকের এই পহেলা আষাঢ় আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। গত সপ্তাহের পুরোটা জুড়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে থেমে থেমে কখনও হালকা, কখনও মাঝারি, আবার কখনও তুমুল বৃষ্টি চলছে। আবহাওয়া অধিদফতরের মতে, বাংলাদেশের সীমানায় অনেক আগেই চলে এসেছে মৌসুমী বায়ু। তাই আকাশ আগেই কাঁদতে শুরু করেছে। এর সঙ্গে আবার যোগ হয়েছে লঘুচাপ। দুইয়ে মিলে আষাঢ়ের আগমনী ধ্বনি আগেই বেজে উঠেছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, আজও আবহাওয়া থাকবে আগের ক’দিনের মতোই। উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় এবং উপকূলীয় এলাকায় লঘুচাপ বিরাজ করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় বায়ুচাপের আধিক্য আছে এবং আকাশে গভীর সঞ্চারণশীল মেঘের সৃষ্টি হয়েছে। সমুদ্র বন্দর, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং উপকূলীয় এলাকার ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এ জন্য দেশের চার সমুদ্র বন্দর চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, পায়রা এবং মোংলাকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

নদী বন্দরগুলোকে দেওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়, রাজশাহী, রংপুর, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, চাঁদপুর, কক্সবাজার, ময়মনসিংহ ও সিলেট অঞ্চলের ওপর দিকে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এ জন্য এসব এলাকার বন্দরগুলোকে ১ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

Share.

About Author

Leave A Reply