আইনের শাসন ও মানবাধিকার বাস্তবায়ন সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ

0

ড. মো. এনামুল হক

আইনের চোখে সবাই সমান এটা আমরা সবাই জানি এবং এটা সাংবিধানিক অধিকারও বটে। সংবিধান অনুযায়ী মানবাধিকার বাস্তবায়নে বাংলাদেশে মানবাধিকার কমিশনও রয়েছে , আইনের শাসন বাস্তবায়নে সাংবিধানিক সরকার ব্যবস্থা রয়েছে, রয়েছে আইন আদালত, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, দেশি বিদেশি অনেক মানবাধিকার সংস্থা, কিন্তু আইনের শাসন ও মানবাধিকার কি সত্যিকার অর্থে বাস্তবায়ন হচ্ছে!

একজন মানবাধিকার কর্মী ও  আইনজীবী হিসেবে আমি স্তম্ভিত, আমি হতবাক এই দেখে যে নোয়াখালীতে ২ সন্তানের জননীকে বর্বর জানোয়ারের দল চার হাত পায়ে ধরে যৌনাঙ্গে টর্চ লাইট ঢুকিয়ে হিংস্র যৌণ নির্যাতন ও ধর্ষণ , যাত্রাবাড়ীতে  ৪ ও ৫ বছরের  নুসরাত ও  ফারিয়াকে ধর্ষণ ও হত্যা,  ঢাকার শান্তিবাগের ৪ বছরের মীমকে  ধর্ষণের পর সারারাত শাহজাহানপুর থানায় বসিয়ে রাখা, হোমনার দশম শ্রেণীর ছাত্রী সাদিয়ার বাসায় গিয়ে যৌণ হয়রানি , বরিশালের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের ফলে গর্ভবতী হওয়া এবং এ সকল জঘন্য ও নির্মম অপরাধের বিচারের জন্য প্রতিবাদ ও আইনী সহায়তাকারী আইনজীবীকে আদালতে যাওয়ার পথে নিজ চেম্বারে আক্রমণ করা এবং হত্যার হুমকি দিয়ে আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানো হয়।

একজন সেলিব্রিটি পরিমনিকে যৌনাচারের আঁধার বানিয়েছে পুলিশ মহাপরিচালক বেনজির আহমেদের  বন্ধু ও কাছের পরিচিত নাসির আহমেদ।   এমন শত শত  অনাকাঙ্খিত ও জঘণ্য অপরাধ দমনে সরকারের আদৌতে কোন কার্যকরী ভূমিকা নেই বললেই চলে।

আমি চরম শংকিত ও আতংকগ্রস্থ যখন দেখি সরকারের দুর্নীতির অনুসন্ধানকারী একজন সিনিয়র  নারী সাংবাদিক কে একজন আমলা  শারীরিক হেনস্থা করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয় । কিন্তু   গুলশানে প্রেমের বলি হয়ে হত্যাকাণ্ডের শিকার    মীমের প্রেমিক শীর্ষ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের এম ডি তানভীর সোবহান এর নাম আসলেও এখনো তাকে আইনের আওতায় আনা সম্ভব তো দূরের কথা জিজ্ঞেস পর্যন্ত করা হয়নি।

আইনের শাসন ও মানবাধিকার বাস্তবায়ন-প্রয়োগে এমন বৈষম্য শান্তি ও ন্যায় বিচারের জন্য ভয়ানক হুমকি । আইন ও মানবাধিকারের  কবরে দাড়িয়ে এবং  এই কঠিন চ্যালেঞ্জ নিরসন না করে উন্নয়ন আদৌ কি সম্ভব?

টেকসই উন্নয়ন, শান্তি ও ন্যায় বিচার নিশ্চিন্তকরনে আইনের শাসন ও মানবাধিকার বাস্তবায়ন সরকার ও দেশের জন্য এক কঠিন চ্যালেঞ্জ।

লেখক : মানবাধিকার আইনজীবী

Share.

About Author

Leave A Reply